1. admin@newsnarayanganjbd.com : newsnarayanganj :
  2. robinnganj@gmail.com : newsnganj newsnganj : newsnganj newsnganj
বুধবার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৯, ০৭:৫৩ অপরাহ্ন

আজ থেকে পেয়াজ বাজারে শুরু হচ্ছে মোবাইল কোর্ট

প্রতিবেদকের নাম :
  • আপডেট সময় : শনিবার, ১৬ নভেম্বর, ২০১৯
  • ৫৭ জন সংবাদটি পড়েছেন
আজ থেকে পেয়াজ বাজারে শুরু হচ্ছে মোবাইল কোর্ট

বিশেষ প্রতিবেদক :  লাগামহীন পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে যাচ্ছে পেয়াজের বাজার। এর আগে আর কখনোই রান্নার কাজে অতি জরুরী এই পন্যটির মূল্য একশ টাকার বেশি উঠেনি। কেজি প্রতি বাজার মূল্য পঞ্চাশ টাকা অত্রিকম করলেই তীব্র সমালোচনার মুখে পড়েছে সরকার। অথচ গতকাল এই পিয়াজের মূল্য উঠেছে প্রায় তিনশ টাকার কাছাকাছি। তাই সব ধরনের মিডিয়ায় এখন তীব্র সমালোচনার মুখোমুখি সরকার। অনেকেই বানিজ্য মন্ত্রীর পদত্যাগও দাবি করছেন। আবার অনেকে দাবি করছেন সরকারের পদত্যাগ। এমাতবস্থায় পেয়াজ সিন্ডিকেটের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যাবস্থা নেয়ার স্বিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। আজ থেকে নারায়ণগঞ্জ শহরে পিয়াজের দোকান এবং আরৎগুলিতে মোবাইল কোট পরিচালনা করবে নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসন। গতকাল এই তথ্য জানিয়েছেন জেলা প্রশাসক জসিম উদ্দিন।
তিনি সাংবাদিকদের জানিয়েছেন যে হারে পেয়াজের মূল্য বাড়ানো হচ্ছে এটা মোটেও স্বাভাবিক কিছু নয়। ব্যবসায়ীরা যে দাম দিয়ে পেয়াজ কিনেছে তাতে তারা কিছু টাকা লাভ করে বিক্রি করতে পারে। যতোই ক্রাইসিস হোক এই মূল্য কিছুতেই একশ টাকার উপরে উঠার কথা নয়। তাই ব্যবসায়ীদের এই কারসাজি বন্ধ করতে ব্যাপক অভিযান চালানোর স্বিদ্ধান্ত হয়েছে।
এদিকে শহরের মাসদাইর নিবাসী আরিফ হোসেন বলেন গত বিশ বছর ধরে কালিবাজার পাইকারী দোকান থেকে পেয়াজ মরিচ আদা রসুন কিনে আসছি। আমার চারজনের সংসারে মাসে পাঁচ কেজি পিয়াজ লাগে এবং আমি মাসে একবার কিনে নেই। গতকাল শুক্রবার সকালে বাজারে গিয়ে পেয়াজের দাম জানতে চাইলে দোকানদার বলেন আড়াইশ টাকা কেজি। আপনি আমাদের বান্দা কাস্টমার, তাই আপনি দশ টাকা কম দেন। তিনি আমার কাছ থেকে ২৪০ টাকা করে রাখলেন। বিশ বছরে এই প্রথম পাঁচ কেজির জায়গায় দুই কেজি কিনলাম। কম কিনলাম এই আশায় যে নতুন পেয়াজ নামলে যদি দাম কমে তাই। কিন্তু প্রশ্ন হলো দেশটা আসলে কারা কিভাবে চালাচ্ছেন। পেয়াজের কেজি আড়াইশ টাকা, কিন্তু কারো যেনো কোনো দায়িত্ববোধ নেই। পেয়াজের দাম কেনো এতো বাড়লো সরকারের কারো কাছে কোনো ব্যাখ্যাও নেই। দেশের মানুষ এখন দিশেহারা। এ দেশে যেভাবে রান্না হয় তাতে পেয়াজ ছাড়া রান্না করা প্রায় অসম্ভব। মাছ মাংস শাক সব্জি যাই রান্না করা হোক না কেনো সব কিছুতেই পেয়াজ দিতে হয়। অথচ এমন একটি প্রয়োজনীয় খাদ্যপন্যের দাম এভাবে বেড়ে গেলো, অথচ কেউ জানে না বা আগে থেকে কউে আচ করতে পারেনি যে পরিস্থিতি এমন হবে। আসলে বাংলাদেশের মানুষ এখন অসহায়। এখানে যে যাই করুক না কেনো কারোই কিছু বলার নেই। হঠাৎ একটি জিনিসের দাম বেড়ে যায়। জনগনের পকেট থেকে চলে যায় বিপুল টাকা। কিন্তু কেউ প্রতিবাদ করতেও সাহস পায় না। গত প্রায় দুই মাস ধরেই ক্রমাগত পেয়াজের দাম বাড়তে শুরু করেছে। কিন্তু সরকার যেনো নির্বিকার। কোনো ব্যবস্থাই নেয়নি সরকার। কারন সরকারকেতো কোনো রকম জবাবদিহি করতে হচ্ছে না। দেশে কার্যত কোনো বিরোধী দলও নেই। সংসদে জাতীয়পার্টির মতো বিরোধী দল কেবল জাতির সাথে তামাশা করা ছাড়া আর কিছুই করছে না। অন্য বিরোধী দল বিএনপির মেরুদন্ড ভেঙ্গে দেয়া হয়েছে। তাই যে যা খুশী তাই করে পাড় পেয়ে যাচ্ছে। ফলে শুধু পেয়াজ নয়, সব কিছুর দামই এমন লাগামহীন ভাবে বেড়েছে যে সধারন মানুষের নুন আনতে পান্তা ফুরাচ্ছে। সত্যি আমরা কতো অসহায়।
এদিকে মানুষ যখন এভাবে সরকারের সমালোচনা করছে তখন সরকার এই মোবাইল কোর্ট পরিচালনার স্বিদ্ধান্ত নিলো। তাই এখন দেখার বিষয় এরপর পেয়াজের দাম কমে কি না? যদিও এরই মাঝে বাজারে উঠতে শুরু করেছে নতুন পেয়াজ।

সংবাদটি আপনার ভাল লাগলে শেয়ার করুন

Leave a Reply

এ বিভাগের আরও সংবাদ

Customized By NewsSmart