শনিবার, ৩০ মে ২০২০, ১০:০৭ অপরাহ্ন

গাবতলীতে জাহিদ ও এলাকাবাসীর মধ্যে উত্তেজনা : ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া

নিজস্ব প্রতিবেদক : / ৯১৮ Time View
Update : শনিবার, ৩০ মে ২০২০, ১০:০৭ অপরাহ্ন
গাবতলীতে জাহিদ ও এলাকাবাসীর মধ্যে উত্তেজনা : ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া

অবশেষে প্রতিবেশীর লোকজনের উপর হামলা চালাতে মাসদাইর ও আশপাশের সন্ত্রাসীদের নিয়ে এসে হামলার চেষ্ঠা চালিয়েছে  সেই জাহিদ। ফলে বিক্ষুব্দ প্রতিবেশীরা এবং এলাকাবাসী ঐক্যবদ্ধ হয়ে সন্ত্রাসীদের ধাওয়া দিয়ে নিজেদের আত্মরক্ষা করেন। খবর পেয়ে ফতুল্লা পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে।

এদিকে এ বিষয়ে জানতে ফতুল্লা থানায় টেলিফোন করা হলে ফতুল্লা থানার ওসি তদন্ত শাহাদাৎ হোসেন জানান, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনার জন্য পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়েছে এবং প্রোপার ইনভেস্টিগেসনের মাধ্যমে অপরাধীদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনানুগ ব্যাবস্থা গ্রহন করা হবে।

 

এ বিষয়ে জানতে নারায়ণগঞ্জের পুলিশ সুপার জাহিদুল আলমের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনিও অপরাধীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যাবস্থা নেয়ার কথা জানান। তিনি তাৎক্ষনিক ব্যাবস্থা নেয়ার কথা জানান।

 

এদিকে রাত সাড়ে ১১টায় এই রিপোর্ট লিখার সময় পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে নিয়ে নেয়। এলাকাবাসীর অভিযোগ,  এসময় জাহিদ পুলিশের সঙ্গে উচ্চ বাচ্য শুরু করেন।

এদিকে জাহিদের  বিরুদ্ধে এলাকার গন্যমান্য ব্যাক্তিসহ ২২ জন ব্যাক্তি নারায়ণগঞ্জের জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার এবং ফতুল্লা থানায় লিখিত অভিযোগ করেন। আর এসব অভিযোগের ভিত্তিতে গতকাল কয়েকটি দৈনিক পত্রিকা এবং অনলাইন পত্রিকায় রিপোর্ট প্রকাশ হয়। পরে এই ঘটনায় জাহিদ আরো ক্ষিপ্ত হয়ে রাতে আশপাশের এলাকা থেকে সন্ত্রাসী এনে  হামলার চেষ্ঠা চালায়। এতে আশপাশের লোক একত্রিত হয়ে সন্ত্রাসীদের প্রতিরোধ করে। এই রিপোর্ট লিখার সময় পর্যন্ত উত্তেজনা চলছিলো।

 

প্রসঙ্গত জাহিদের প্রতিবেশীরা গত দুই বছর ধরে চরম অত্যাচারের স্বীকার হচ্ছেন বলে জানিয়েছেন। তারা এরই মাঝে স্থানীয় ফতুল্লা থানায় অভিযোগ করেছেন। কয়েক দফা থানা থেকে পুলিশ আসলেও থামছে না জাহিদের অত্যাচার। ফলে জাহিদের সকল প্রতিবেশীরা ঐক্যবদ্ধ হয়ে নারায়ণগঞ্জের জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার এবং ফতুল্লা থানায় লিখিত অভিযোগ করেন।

 

তারা স্থানীয় ইউনিয়ন স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের মেম্বারের কাছেও লিখিত অভিযোগ জানিয়েছেন। এসব অভিযোগে স্বাক্ষর করেছেন ওই এলাকার ২২ জন ভুক্তভোগী নারী পুরুষ। তাদের অভিযোগগুলির মাঝে রয়েছে জাহিদ কথায় কথায় প্রতিবেশীদের কুরুচিপূর্ণ এবং অশ্লিল ভাষায় গালিগালাজ করেন। কেউ প্রতিবাদ করলে তাকে গুলি করে হত্যা করার হুমকি দেন এবং মামলা দিয়ে জেলের ভাত খাওয়ানোর হুমকি দেন।

আরও পড়ুন : নারায়ণগঞ্জে ডিপিডিসির ভুতুড়ে বিল ! : গ্রাহকদের মাঝে উত্তেজনা

 

জাহিদ সব সময় নিজেকে স্থানীয় এমপি শামীম ওসমানের ঘনিষ্ট হিসাবে পরিচয় দিয়ে সবাইকে দেখে নেয়ার হুমকি দেন।
এদিকে এসব অভিযোগে যারা স্বাক্ষর করেছেন তারা হলেন, ১) ডেইজি সুলতানা ২) সারাহ্ ৩) বেবী আক্তার ৪) নুহা আলম ৫) আক্তার জাহান ৬) সাদিয়া ৭) কাকন আক্তার ৮) রিনা ৯) শাহআলম ১০) দেলোয়ার হোসেন ১১) মনিরুজ্জামান ১২) আবু জাহের ১৩) মো: রাসেল ১৪) মো: মোজাহের ১৫) সেলিনা ১৬) মাহমুদা সুলতানা ১৭) আবদুল বাতেন শিকদার ১৮) মালিক সোহেল সারোয়ার ১৯) মো: শাজাহান ২০) সাজ্জাদ ২১) কামরুল হাসান ২২) গাজী মনির হোসেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More News Of This Category

ফেসবুকে আমরা

এক ক্লিকে বিভাগের খবর
Translate »
Translate »