শরীফের খালাতো ভাই মেহেদী হাসান বলেন, এলাকার শাকিল, লালন নামে কয়েকজনের সাথে শরীফ ভাইয়ের শত্রুতা ছিল৷ কয়েক মাস আগে এক ঝামেলায় চেয়ারম্যান-মেম্বাররা মিলে মিটমাট করে দিছে৷ তারপরও ওরা ঝামেলা করে৷ তিন-চারদিন আগেও তারা দোকানে আইসা ঝামেলা করছে৷

স্বজনদের অভিযোগ, শাকিল, লালন ওরা সন্ত্রাসী কর্মকান্ড করে বেড়ায়৷ কাশীপুর ৭ নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বার শামীমের ছত্রছায়ায় তারা চলে৷ এ বিষয়ে ফতুল্লা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আসলাম হোসেন বলেন, ‘দেওভোগ আদর্শনগর এলাকায় যুবককে কুপিয়ে হত্যার ঘটনার খবর পেয়ে পুলিশ পাঠিয়েছি৷ লাশ মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে৷ এলাকার কিছু ছেলের সাথে নিহতের পূর্ব শত্রুতা ছিল বলে স্বজনরা জানিয়েছে৷ এ ঘটনায় মামলা প্রক্রিয়াধীন৷’