1. admin@newsnarayanganjbd.com : newsnarayanganj :
শনিবার, ০৪ এপ্রিল ২০২০, ০২:৩৪ পূর্বাহ্ন

বিশাল কর্মীরাই আমার ‘অস্ত্র’ ভান্ডার – শামীম ওসমান

চমক চৌধুরী
  • আপডেট সময় : মঙ্গলবার, ৩ মার্চ, ২০২০
  • ১০৮০ জন সংবাদটি পড়েছেন
বিশাল কর্মীরাই আমার ‘অস্ত্র’ ভান্ডার - শামীম ওসমান

 শামীম ওসমান মানেই চমক, আলাদা কিছু। তার বক্তব্যেও চমক থাকে। এটাই স্বাভাবিক। এবারও তার ব্যতিক্রম হয়নি। এবার তিনি তার অন্য রকম একটি বক্তব্যের জন্য আবারো আলোচনায় চলে এসেছেন। গত ১ মার্চ নারায়ণগঞ্জ পুলিশ লাইনসে পুলিশ মেমোরিয়াল ডে’তে অস্ত্র বিষয়ক একটি বক্তব্যের কারণে জেলা জুড়ে চলছে আলোচনা। টক অব দ্যা টাউনেও পরিণত হয়েছে তার এই বক্তব্য। এ প্রতিবেদক চেষ্টা করেছেন সংসদ সদস্য শামীম ওসমানের সঙ্গে কথা বলে তার ‘অস্ত্র’ বিষয়ক ভেদটি ভাঙ্গতে। আসলে তিনি অস্ত্র বলতে কী বোঝাতে চেয়েছেন?
গত ১ মার্চ শামীম ওসমান ওই অনুষ্ঠানে পুলিশ কর্মকর্তাদের সামনে তার বক্তব্যের এক পর্যায়ে বলেছেন, ‘২০০১ সালের আগে নারায়ণগঞ্জ পুলিশ ফোর্সের কাছে যত অস্ত্র না ছিল, তার থেকে বেশি অস্ত্র একা আমার নিজের কাছেই ছিল। তবে আজকে আমার গাড়িতে অস্ত্র আছে কিনা তা আমি নিজেও জানি না।’
শামীম ওসমানের এই বক্তব্য যখন জেলা জুড়ে আলোড়ন সৃষ্টি করেছে তখন এই প্রতিবেদক সাংসদ শামীম ওসমানের সঙ্গে যোগাযোগ করে তার অস্ত্র বিষয়ক বক্তব্যের ব্যাখ্যা জানতে চান সবিনয়ে।
শামীম ওসমানের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি এ প্রতিবেদককে সহাস্যে বলেন, আমি চাইনি এই বক্তব্যের ভেদ ভাঙ্গতে। দেখতে চেয়েছিলাম আইন শৃঙ্খলা বাহিনী আমার এই বক্তব্যের কি মানে দাঁড় করায়। কারণ প্রশাসনের মধ্যে সরকারের অনুগত কর্মকর্তা যেমন আছে, তেমন বিপদগামী সদস্যও রয়েছে। যারা সরকারের অনুগত নয় তারা নিশ্চই আমার এই বক্তব্যের ভিন্ন মানে দাঁড় করাবে।
শামীম ওসমান বলেন, আমার অস্ত্র বিষয়ক এই বক্তব্য নিয়ে নারায়ণগঞ্জ থেকে পরিচালিত একটি অনলাইন নিউজ পোর্টাল থেকেও যোগাযোগ করা হয়েছে। তাদেরকে আমি তাদের মতো করে উত্তর দিয়েছি। কিন্তু আপনি দেখছি নাছোড় বান্দা। আপনি ঠিকই আন্দাজ করেছেন আমি ‘অস্ত্র’ এই বিষয়টিকে একটি রূপক অর্থে ব্যবহার করেছি। এখন আপনার প্রশ্ন সেই রূপক অর্থটি কী?
এই প্রতিবেদকের চাপাচাপিতে আলোচিত এই সংসদ সদস্য বলেন, আসলে অস্ত্র বিষয়টিকে আমি একটি রূপক অর্থে ব্যবহার করেছি। হয়তো অনেকেই আমার এই বক্তব্যের জন্য আমাকে ভুল বুঝবে। আমি আমার বক্তব্যে বলেছি ২০০১ সালের আগে নারায়ণগঞ্জ পুলিশ ফোর্সের কাছে যত অস্ত্র না ছিল, তার চেয়েও বেশি অস্ত্র ছিল আমার কাছে। হ্যাঁ এ কথা সত্যি। কারণ আমার এই অস্ত্র হচ্ছে, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রতি বিশ^স্ত, জাতীর জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নে লালিত ও জাতির জনকের কন্যার আস্থাভাজন তথা শামীম ওসমানকে যারা মনে প্রাণে ভালবাসে সেই বিশাল ‘কর্মী বাহিনী’। তারাই সেদিন আন্দোলন-সংগ্রামে আমার প্রধান অস্ত্র ছিল। আমি এ কথাই পুলিশের অনুষ্ঠানে আমার বক্তব্যে বোঝাতে চেয়েছি। কারণ ওই সময় নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশের সদস্য সংখ্যা ছিল এক হাজার থেকে এক হাজার দুইশ’র মতো। কিন্তু শামীম ওসমানের কর্মী বাহিনী নারায়ণগঞ্জ পুলিশের চেয়েও ওই সময় অনেক অনেক বেশি ছিল। সত্যিকার অর্থে যদি আমার কাছে এত অস্ত্র থাকতো তাহলে সেগুলো চালানোর মতো তো মানুষ থাকা চাই। প্রকৃত অর্থে আমার বক্তব্যের সেই অস্ত্র ছিল আমার বিশাল কর্মী বাহিনী। যারা এখনও বিদ্যমান। এই বিশাল কর্মী বাহিনীই আমার শক্তি, সাহস ও বিশ^াস। কারণ এরা আছে বলেই আজকে আমি শামীম ওসমান হতে পেরেছি। অনেকেই সেদিন শামীম ওসমানের জন্য জীবন দিয়েছিল। আমি আমার সেই অকুতোভয় কর্মীদের শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করছি এবং তাদের আত্মার প্রতি শ্রদ্ধা জানাচ্ছি। এই অস্ত্র ব্যবহার করেই জিয়াউর রহমানের গাড়ির সামনে শুয়ে পড়ে আমরা দাবী আদায় করেছিলাম। আপনারই বলুন আগ্নেয়াস্ত্রের চেয়ে কি কম শক্তিশালী আমার এই কর্মী বাহিনী। নিন্দুকেরা যে যাই বলুক যতদিন বেঁচে আছি আমি আমার এই বিশাল কর্মী বাহিনীর অস্ত্রটি নিয়েই পথ চলবো। এ অস্ত্র আমার কাছে যেমন ছিল এখনও আছে। মিডিয়া যেভাবেই ব্যাখ্যা করুক না কেন। ওটা তাদের বিষয়। এ নিয়ে আমি বিন্দুমাত্রও বিচলিত নই। আমি শামীম ওসমান আগামীতে শামীম ওসমানই থাকব। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছায়াতলেই থাকব।

সংবাদটি আপনার ভাল লাগলে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ বিভাগের আরও সংবাদ

আমাদের দৈনিক পত্রিকা পড়ুন

সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত নিউজ নারায়ণগঞ্জ বিডি ডট নেট
Customized By NewsSmart