রূপগঞ্জে ভুল চিকিৎসায় প্রসূতির মৃত্যু, আটক ৫

0
16
রূপগঞ্জে ভুল চিকিৎসায় প্রসূতির মৃত্যু, আটক ৫

রূপগঞ্জ প্রতিনিধি : নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলার ভুলতা জেনারেল হাসপাতালে ভুল চিকিৎসায় গতকাল বৃহস্পতিবার ভোরে প্রসূতি মৃত্যু হয়েছে। এ সময় উত্তেজিত জনতা বিক্ষোভ শুরু করে। একপর্যায়ে শত শত জনতা ভাংচুর করে হাসপাতাল বন্ধের দাবি জানান। ভুলতা ফাঁড়ি পুলিশ হাসপাতাল ভাংচুরের ঘটনায় ৫জনকে আটক করেছে।
জানা গেছে, গত বুধবার দুপুরে ভুলতা জেনারেল হাসপাতালে উপজেলার আউখাবো গ্রামে বাসিন্দা রাকিব হোসেনের স্ত্রী ফাতেমা আক্তারকে (২০) ভর্তি করা হয়। রাত ১১টার দিকে প্রসব ব্যথা হলে ডা. সালমা ইসলাম অস্ত্রপাচার করে। এ সময় একটি ছেলে সন্তান প্রসব হয়। কিন্তু ভুল অপারেশনের কারণে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ হলে ১০ ব্যাগ রক্ত পুশ করা হয়। বৃহস্পতিবার ভোর রাতে প্রসূতি ফাতেমা আক্তার মারা যান। খবর পেয়ে রোগীর আÍীয়-স্বজন ও স্থাণীয়রা উত্তেজিত হয়ে হাসপাতালে বিক্ষোভ করে ভাংচুর চালায়। এ সময় হাসপাতালের পরিচালক আব্দুল আউয়াল, মনির হোসেন, মিলন মিয়াসহ চিকিৎসক, নার্সরা পালিয়ে যায়।
নিহত ফাতেমার মামা রাশেদ জানান, প্রসব ব্যথা হলে ফাতেমাকে ভুলতা জেনারেল হাসপাতালে বুধবার দুপুরে ভর্তি করা হয়। ওই রাতেই অস্ত্র পাচার করার পর ডা. সালমা জানায়- রক্ত বন্ধ করা যাচ্ছে না। সারারাতে ১০ ব্যাগ রক্ত দেয়া হয়েছে। ছেলে সন্তান সুস্থ্য থাকলেও ফাতেমা ভোর ৫টার দিকে মারা যায়। ভুলতা ফাঁড়ির এসআই সহিদুল ইসলাম ও নুরে আলম আবিদ, ওয়াহিদ, নাসিম, বাপ্পীসহ ৫জনকে আটক করে। এর আগেও এ হাসপাতালে ভুল চিকিৎসায় আরো একাধিক রোগীর মৃত্যু হয়েছে।
ভুলতা ইউপি চেয়ারম্যান ব্যারিষ্টার আরিফুল হক ভুঁইয়া জানান, ভুল চিকিৎসায় রোগীর মৃত্যুর বিষয়টি খুবই দু:খজনক। এ ধরণের অভিযুক্ত হাসপাতাল বন্ধ করে দেয়া উচিৎ।
ভুলতা জেনারেল হাসপাতালে এমডি মো. মিলন মিয়া জানান, এটি একটি অনাকাঙ্খিত ঘটনা। মানুষ মাত্রেই ভুল হতে পারে। তবে নিহতের পরিবারের সাথে বিষয়টি সমাধানের চেষ্টা চলছে।
রূপগঞ্জ থানার ওসি মাহমুদুল ইসলাম জানান, অভিযোগ পেলে হাসপাতাল কৃর্তপক্ষের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থাগ্রহণ করা হবে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ রাখতে ৫জনকে আটক করা হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here