বাসায় ডেকে এনে চারজন মিলে গৃহকর্মীকে ধর্ষণ

0
19
বাসায় ডেকে এনে চারজন মিলে গৃহকর্মীকে ধর্ষণ

নিজস্ব প্রতিবেদক : সোনারগাঁ উপজেলায় কাজের কথা বলে এক গৃহকর্মীকে মোবাইল ফোনে বাসায় ডেকে এনে ধর্ষণ করেছে ৪ যুবক। ঘটনার সঙ্গে জড়িত দুই ধর্ষককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। উপজেলার জামপুর ইউনিয়নের বাগবাড়িয়া এলাকায় গত সোমবার দিবাগত রাতে এ ঘটনা ঘটলে ওই গৃহকর্মী মঙ্গলবার রাতে বাদী হয়ে সোনারগাঁ থানায় ৪ জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেন। মামলার পর রাতেই দুই ধর্ষককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

মামলার এজাহারভুক্ত আসামিরা হলেন, সোনারগাঁ উপজেলার বাগবাড়িয়া এলাকার মৃত সোবহান মিয়ার ছেলে হাবিবুর, একই এলাকার আজিজুল মিয়ার ছেলে স্বপন এবং নওগাঁ জেলার শিকারপুর গ্রামের মোতাহার প্রামাণিকের ছেলে শাহীনুর ইসলাম। এদের মধ্যে হাবিবুর ও শাহীনুরকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

ধর্ষণের শিকার গৃহকর্মী জানান, দীর্ঘদিন যাবৎ সোনারগাঁ উপজেলার জামপুর ইউনিয়নের বাগবাড়ীয়া গ্রামের হাবিবুরের বাড়িতে ভাড়া থেকে বিভিন্ন লোকের বাসায় গৃহকর্মীর কাজ করতেন তিনি। কাজের সুবিধার্থে তিনি বর্তমানে রূপগঞ্জ উপজেলার ভুলতা এলাকায় ভাড়া বাসা নিয়ে বসবাস করে গৃহকর্মীর কাজ করেন। হাবিবুরের বাসায় ভাড়া থাকা অবস্থায় হাবিবুর ও ওই গৃহকর্মীর কিছু আর্থিক লেনদেন হয়। এ বিষয়ে কথা বলার জন্য হাবিবুরের সহযোগী স্বপন ও শাহিনুর ওই গৃহকর্মীকে ফোন করে হাবিবুরের বাসায় আসতে বলে। তাদের কথা শুনে তিনি হাবিবুরের বাসায় এলে তাকে জোরপূর্বক ৪ জন মিলে গণধর্ষণ করে। এক পর্যায়ে ওই গৃহকর্মী অচেতন হয়ে পড়লে তাকে ফেলে রেখে পালিয়ে যায় ধর্ষকরা। পরে তিনি সুস্থ হয়ে মঙ্গলবার রাতে ৩ জনের নাম উল্লেখ করে এবং একজনকে অজ্ঞাতনামা আসামি করে সোনারগাঁ থানায় একটি ধর্ষণের মামলা দায়ের করেন।

সোনারগাঁ থানা পুলিশের তালতলা ফাঁড়ির ইনচার্জ আহসানউল্লাহ বলেন, মামলা দায়েরের পর ওই এলাকায় অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত দুজনকে গ্রেফতার করা হয়ে। বাকি দুজনকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

সোনারগাঁ থানা পুলিশের ওসি মনিরুজ্জামান বলেন, ধর্ষণের দায়ে গ্রেফতারকৃতদের রিমান্ড চেয়ে আদালতে পাঠানো হবে।

উল্লেখ্য, চলতি মাসেই একই এলাকায় এক গার্মেন্টকর্মীকে সিএনজি অটোরিকশা করে তুলে এনে রাতভর গণধর্ষক করে ৬ যুবক। ওই ঘটনায় ৫ জনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। ৫ ধর্ষক দুই দিনের রিমান্ড শেষে কারাগারে রয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here