স্বপদে এসপি হারুনের কালক্ষেপনের নেপথ্যে

0
19
স্বপদে এসপি হারুনের কালক্ষেপনের নেপথ্যে

বিশেষ প্রতিনিধি : বিতর্কিত এসপি হারুন অর রশিদকে রাষ্ট্রপতির আদেশে ৩ নভেম্বর প্রত্যাহার করলেও এখনও তিনি স্বপদে কালক্ষেপনের নেপথ্য রয়েছে মাসোহারা। এডিশনাল এসপি মনির হোসেনকে ভারপ্রাপ্ত দায়িত্ব দেবার মৌখিক নির্দেশনা থাকলেও তিনি সুকৌশলে নানান বাহানা দিয়েছেন। তাৎক্ষনিক দায়িত্ব হস্তান্তর না করার নেপথ্য রহস্য উম্মোচিত হয়েছে ডিবির এসআই ও এসপি হারুনের সর্বশেষ সেনাপতি আরিফের টাকার উপর ঘুমের ছবি সামাজিক মাধ্যমে ভাইরাল হবার পর। অন্যকোন কারণে নয় শুধু মাত্র অক্টোবর মাসে জেলার বিভিন্ন স্থান থেকে এসপি অফিসের তালিকাভুক্ত মাসোহারা হাতিয়ে নেয়ার জন্য তার এই কালক্ষেপন। মুলত এসআই আরিফের এই ঘটনার পরই খোদ পুলিশ ও তাদের সোর্সরাই ফাঁস করে দিয়েছেন টাকার উৎস সম্পর্কে। বেরিয়ে আসতে শুরু করেছে এবার এসপি হারুনের মাসোহারা আদায়ের নানা হিসাব। সূত্রমতে, সমগ্র জেলা থেকে প্রতি মাসে প্রায় সাড়ে ৩ কোটি টাকা মাসোয়ারা উঠানো হয়েছে শুধুমাত্র এসপি অফিসের খাতে। এ মাসোহারার অধিকাংশই ডিবির মাধ্যমে আদায় করা হয়। তবে কিছু কিছু খাত থেকে মাসোহারা তুলে আনেন প্রতিটি থানা এলাকায় নিয়োজিত নির্দিষ্ট সোর্সরা। প্রত্যেক মাসের ৬ থেকে ৯ তারিখের মধ্যে উঠে আসে এসপি অফিসের মাসোহারা। মুলত এ কারণেই তিনি ৭ নভেম্বর পর্যন্ত স্বপদে অবস্থান করেছেন। তবে পুলিশ বলছে, পুরো টাকাটি উঠিয়ে নিতে পারলেন না এসপি স্যার। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর চোখ রাঙ্গানীতে অনেকটা বাধ্য হয়েই তিনি গতকাল বৃহস্পতিবার এডিশনাল এসপি মনিরুল ইসলামকে দায়িত্ব বুঝিয়ে দিয়ে নারায়ণগঞ্জ ছাড়েন। আর এরি মধ্য দিয়ে নারায়ণগঞ্জ মুক্ত হলো এক প্রশাসনিক অহরনকারী চক্রের গডফাদার থেকে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here